র‍্যাম তৈরি শুরু করল ওয়ালটন

র‍্যাম তৈরি শুরু করল ওয়ালটন

কম্পিউটার ও ল্যাপটপের জন্য র‌্যানডম অ্যাকসেস মেমোরি (র‌্যাম) তৈরি শুরু করেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় ইলেকট্রনিকস পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। নিজেদের তৈরি কম্পিউটার ও ল্যাপটপে দেশীয় র‌্যাম ব্যবহার শুরু করেছে তারা।

Walton started building the RAM
Walton started building the RAM


রাজধানীর আগারগাঁওয়ে এনএসই সম্মেলন কক্ষে আজ মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে ওয়ালটনের র‌্যাম তৈরির কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার এবং তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

অনুষ্ঠানে ওয়ালটন জানায়, ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে ওয়ালটন গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের অধীনে ল্যাপটপ ও কম্পিউটার উৎপাদনের কারখানা চালু করে। এর আগে ২০১৭ সালের অক্টোবর থেকে তারা দেশে মোবাইল হ্যান্ডসেট উৎপাদন করছিল। ওয়ালটন এখন ২ হাজার ৪০০ ও ২ হাজার ৬০০ মেগাহার্টজ ক্ষমতার র‌্যাম উৎপাদন করবে বলে অনুষ্ঠানে জানানো হয়। এই র‌্যামের নকশা করেছে ওয়ালটনই।

অনুষ্ঠানে ওয়ালটন ডিজিটেকের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম বলেন, ‘চার বছরে আমাদের আত্মবিশ্বাস তৈরি হয়েছে যে, আমরা সবকিছু তৈরি করতে পারব। এ জন্য শুধু উৎসাহ চাই, আর কিছু নয়।’ তিনি বলেন, ‘আমরা দেশের মানুষকে কম দামে ভালো মানের পণ্য দিতে চাই। অনেক দেশের পণ্য, অনেক ব্র্যান্ডের পণ্য নাম শুনলেই মানুষ নিশ্চিন্তে কেনে। আমরা চাই এমন একটা পর্যায়ে যেতে, যাতে মানুষ ওয়ালটনের পণ্য শুধু নাম দেখেই কিনতে পারে।’

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার বলেন, বাংলাদেশ ইলেকট্রনিকস পণ্যে আমদানিকারক দেশ হিসেবেই পরিচিত ছিল। এখন উৎপাদনকারী দেশে পরিণত হচ্ছে।

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ ১৩ হাজার ওয়ালটন ল্যাপটপ কিনেছিল। দুই বছরে এর একটিও নষ্ট হয়নি। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের মতো তিনিও ওয়ালটনকে সহায়তা করবেন।

অনুষ্ঠানে ওয়ালটন ডিজি-টেকের পরিচালক এস এম মঞ্জুরুল আলম, কম্পিউটার বিভাগের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা লিয়াকত আলীসহ ওয়ালটনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
Newer Posts Older Posts

Related posts